SHOCKING: দুর্গাকে নিবেদনের আপেল খেয়ে ফেলার 'শাস্তি', মারের চোটে মৃত্যু ছয়ের শিশুর

বিবেক নামে ওই শিশুটির দাদু রাম বালাক প্রসাদ থানায় লিখিত অভিযোগে জানান (Durga Puja News), আবাসিক স্কুলের মধ্যেই দুর্গাপুজোর আয়োজন করা হয়েছিল। তাঁর নাতি টেবিলের উপর রাখা ফলের মধ্য থেকে একটি আপেল (Durga's apple) তুলে খেতে শুরু করে ( student beaten to death)।

SHOCKING: দুর্গাকে নিবেদনের আপেল খেয়ে ফেলার 'শাস্তি', মারের চোটে মৃত্যু ছয়ের শিশুর

গয়া: দুর্গাকে নিবেদনের আপেল (Durga's apple) খেয়ে ফেলার 'প্রায়শ্চিত্ত' নিজের জীবন দিয়েই করে গেল ছয়ের এক শিশু! ভারি তো একটা আপেল। সে কী করেই বা বুঝবে সেই আপেল কতটা 'মহার্ঘ্য'। বাড়ির স্বজনবিবর্জিত পরিবেশে, আবাসিক স্কুলের পরিবেশে কাটানো একরত্তি একটা বাচ্চার পক্ষে তা বোঝা হয়তো সম্ভবও ছিল না। তার ক্ষণিক 'লোভ'-এর 'মস্ত দোষে' কী ভয়ানক শাস্তি হল। বেদম মারের চোটে শেষ পর্যন্ত মারাই গেল শিশুটি (student beaten to death)। এই আমানবিক ঘটনাটি (Durga Puja News) ঘটেছে বিহারের গয়া জেলার এক আবাসিক স্কুলে। যে দম্পতি এই স্কুলটি চালায়, পুলিশ তাদের গ্রেফতার করেছে।

মৃত শিশুটির নাম বিবেক। তার দাদু রাম বালাক প্রসাদ থানায় লিখিত অভিযোগে জানান, আবাসিক স্কুলের মধ্যেই দুর্গাপুজোর আয়োজন করা হয়েছিল। তাঁর নাতি টেবিলের উপর রাখা ফলের মধ্য থেকে একটি আপেল (Durga's apple) তুলে খেতে শুরু করে। পুজোর সময় দুর্গাকে নিবেদন করার উদ্দেশ্যেই ফলগুলি সেখানে রাখা ছিল। তা দেখতে পেয়ে ওই আবাসিক স্কুলটির মালকিন ও তাঁর স্বামী বিবেককে পাশের একটি ঘরে নিয়ে গিয়ে নৃশংস ভাবে মারধর করেন। এরপর স্কুলের গেটের বাইরে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় বিবেককে ফেলে দিয়ে যায়।

এক পরিচিত অটোওয়ালা স্কুলের সামনে শিশুটিকে ওই অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে ওয়াজিরগঞ্জ ব্লকের উখরা গ্রামে বিবেককে তার বাড়িতে পৌঁছে দেন। ওই অবস্থায় তত্‍‌ক্ষণাত্‍‌ লোকাল হাসপাতালে নিয়ে গেলে, মগধ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত  করা হয়। কারণ, ক্রমশ শারীরিক অবস্থার অবনতি হচ্ছিল। কিন্তু হাসপাতালে পৌঁছনোর আগে রাস্তাতেই মৃত্যু হয় শিশুটির।

ALSO READ| Not hello say Vande Mataram: ফোন ধরে 'হ্যালো' নয়, বলতেই হবে  'বন্দে মাতরম', নির্দেশ জারি

থানায় লিখিত অভিযোগে শিশুটির দাদু জানান, জ্ঞান ফিরলে বিবেক জানিয়েছিল, স্কুলে কী ঘটেছে। নাতির কাছ থেকেই জানতে পারেন বিকাশ সিং ও তাঁর  স্ত্রী মিলে তাকে মারধর করেন। এতটাই নির্মম, একরত্তি শিশুটির বুকে ঘুসি চালাতেও তাঁরা কুণ্ঠা করেননি।

পুলিশ জানিয়েছে, এই আবাসিক স্কুলটি ওয়াজিরগঞ্জ ব্লকের বাকি বিঘা গ্রামে। শুক্রবার অভিযোগ পেয়ে দু'জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশ এফআইআর রুজু করে তদন্তে নেমেছে। বিবেক ওই স্কুলের হস্টেলে থেকে পড়াশোনা করছিল। 

ALSO READ| La Ganesan: রাজ্যপাল লা গণেশন হঠাত্‍‌ অসুস্থ, ভর্তি চেন্নাইয়ের হাসপাতালে