Data Protection Bill: বিতর্কিত তথ্য সুরক্ষা বিল প্রত্যাহার, সংশোধিত নয়া বিল আনার তোড়জোড়

ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা বিল-২০১৯ (Personal Data Protection Bill) সামনে আসার পরেই কেন্দ্রের মোদী সরকারকে নানা সমালোচনার মুখে পড়তে হয়। বিরোধীরা দাবি করেন,এই বিল মৌলিক অধিকারে হস্তক্ষেপ

Data Protection Bill: বিতর্কিত তথ্য সুরক্ষা বিল প্রত্যাহার,  সংশোধিত নয়া বিল আনার তোড়জোড়

নয়াদিল্লি: অবশেষে বিতর্কিত তথ্য সুরক্ষা বিল (Personal Data Protection Bill) প্রত্যাহার করে নিল নরেন্দ্র মোদী সরকার। কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব বুধবার লোকসভায় বিল প্রত্যাহারের কথা ঘোষণা করেন। অশ্বিনী বৈষ্ণব বলেন, 'ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা বিল-২০১৯ (Personal Data Protection Bill) আপাতত প্রত্যাহার করা হল। সরকার আগামী দিনে একটি সংশোধিত নতুন বিল আনবে। যৌথ সংসদীয় কমিটির সুপারিশ মতো আইনসম্মত বিল আনা হবে বলে তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। 

ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা বিল-২০১৯ নিয়ে এত বিতর্ক কেন

ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা বিল-২০১৯ (Personal Data Protection Bill) সামনে আসার পরেই কেন্দ্রের মোদী সরকারকে নানা সমালোচনার মুখে পড়তে হয়। বিরোধীরা দাবি করেন,এই বিল মৌলিক অধিকারে হস্তক্ষেপ। কারও কারও মতে, এই বিল আইনে পরিণত হলে নাগরিকদের ব্যক্তিগত মতামতের উপর সরকারি হস্তক্ষেপ নেমে আসবে। সরকার নিজের ইচ্ছেমতো যাকে খুশি এই আইনের আওতায় এনে শাস্তিমূলক পদক্ষেপ করতে পারবে। কারও কারও ব্যাখ্যা, এই আইন চালু হলে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে কথা বলা হয়েছে বা রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ এনে যে কাউকে আইনের আওতায় ফেলা যাবে।  সরকারের কোনওরকম সমালোচনা করা যাবে না। কারণ, সমালোচনা করলে, রাষ্ট্রদ্রোহের মামলায় জড়িয়ে দেওয়া হতে পারে। এই বিলে (Personal Data Protection Bill) স্পষ্ট ভাবে রাষ্ট্রদ্রোহিতার ব্যাখ্যা ছিল না। ফলে, বিরোধীদের বক্তব্য ছিল,  রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ সহ এই আইন বলবত্‍ হলে, তার নিশ্চিত অপব্যবহার হত।

বিল এনেও কেন প্রত্যাহার করতে হল কেন্দ্রকে  
 
কেন্দ্রীয় তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণবের ব্যাখ্যা, যৌথ সংসদীয় কমিটি বিলটি পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে খতিয়ে দেখে ৮১টি সংশোধনী এবং ১২টি সুপারিশ করেছে। তার পরেই কেন্দ্র মনে করেছে, বিলটি (Personal Data Protection Bill) প্রত্যাহার করে নেওয়াই সমীচীন। আগামী দিনে সংশোধিত মানসম্মত নতুন বিল পেশ করা হবে। ২০২১-এর ডিসেম্বরে সংসদীয় যৌথ কমিটি ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা বিল নিয়ে মোট ৫৪২ পাতার রিপোর্ট দিয়েছিল। সেখানে ৯৩টি সুপারিশ ছাড়াও ৮১টি সংশোধনীর উল্লেখ ছিল।

ALSO READ| Mobile Apps Blocked: তথ্য পাচারের দায়ে ৩৪৮টি মোবাইল অ্যাপ ব্লক করল কেন্দ্র

ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা বিলটি (Personal Data Protection Bill) প্রত্যাহারের পর কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক জয়রাম রমেশ দাবি করেন, যৌথ সংসদের কমিটির রিপোর্টের পর খোদ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তরফে চাপ সৃষ্টি করা হয়েছিল। কেন্দ্রের এই বিল প্রত্যাহারে বড় প্রযুক্তি সংস্থাগুলি খুশি হবে বলেই মনে করেন জয়রাম রমেশ। 

ALSO READ| Gold seized: বারাসতে উদ্ধার ₹৪ কোটি মূল্যের সোনা, আটক কারবারি