Anant Maharaj: কোচবিহার পৃথক রাজ্য হচ্ছেই, দাবি অনন্ত মহারাজের

পৃথক রাজ্যের দাবি নিয়ে অনন্ত মহারাজ (Anant Maharaj) বলেন, 'রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় সরকারের কী মত, আমি জানি না। তবে যে যা-ই বলুক, পৃথক রাজ্য হচ্ছেই। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah) নিজে বলেছেন, আমাদের ভূখণ্ডের মানুষের হাতে ক্ষমতা দেবেন (Cooch Behar)।'

Anant Maharaj: কোচবিহার পৃথক রাজ্য হচ্ছেই, দাবি অনন্ত মহারাজের

কোচবিহার: কোচবিহার (Cooch Behar) পৃথক রাজ্য হচ্ছে বলে ফের দাবি করলেন অনন্ত মহারাজ (Anant Maharaj)। গ্রেটার কোচবিহার পিপলস অ্যাসোসিয়েশনের নেতা অনন্ত দৃঢ়তার সঙ্গেই এই দাবি করেন। অনন্ত মহারাজ দাবি করেন, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে তাঁর কথা হয়েছে। শাহ আশ্বস্ত করে জানিয়েছেন কোচবিহারের ভূখণ্ডের মানুষের হাতে ক্ষমতা দেবেন। বুধবার বিকেলে কোচবিহারের জেলাশাসক পবন কাদিয়ানের সঙ্গে দেখা করেন মহারাজ। সেখান থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন গ্রেটার কোচবিহার নেতা। তখনই তিনি এই দাবি করেন।

পৃথক রাজ্যের দাবি নিয়ে অনন্ত মহারাজ বলেন, 'রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় সরকারের কী মত, আমি জানি না। তবে যে যা-ই বলুক, পৃথক রাজ্য হচ্ছেই। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ নিজে বলেছেন, আমাদের ভূখণ্ডের মানুষের হাতে ক্ষমতা দেবেন।'  অনন্ত মহারাজ সাম্প্রতিক অতীতেও একই কথা বলেছেন। এর আগে ২৮ অগস্টও গ্রেটার কোচবিহার নেতা দাবি করেছিলেন, অমিত শাহ তাঁকে আশ্বস্ত করেছেন। কোচবিহার পৃথক রাজ্য হবে।

ALSO READ| TMC Tripura: ত্রিপুরায় শক্তি বাড়ল তৃণমূলের

উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী উদয়ন গুহ পৃথক রাজ্যের দাবিদারদের হুঁশিয়ারি দিয়ে রেখেছেন। মন্ত্রীর হুমকি, 'রক্তগঙ্গা বইবে।' অনন্ত রায় মহারাজ বিতর্ক না বাড়িয়ে বলেন, 'এটা যাঁর যাঁর রুচির বিষয়। যার শরীরে যেরকম রক্ত বইছে, সে সেরকম কথা বলবে। আসলে মন্ত্রী মানুষের থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছেন।'

কোচবিহার রাজবাড়ি, বাণেশ্বর মন্দির, গোসানিমারি মন্দির-সহ একাধিক মন্দিরের রক্ষণাবেক্ষণ নিয়ে এদিন জেলাশাসকের সঙ্গে কথা বলতে এসেছিলেন অনন্ত মহারাজ। গ্রেটার কোচবিহার নেতার কথায়, 'এই মন্দিরগুলির জরাজীর্ণ অবস্থা। এই সব স্থাপত্য রাজার আমলের নিদর্শন। জেলাশাসক যেহেতু দেবোত্তর ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান, তাই তাঁর কাছে এগুলির রক্ষণাবেক্ষণ এবং সংস্কারের দাবি জানিয়ে গেলাম।'

ALSO READ|  Kerosene Oil: বঙ্গে কেরোসিন তেলের বরাদ্দ অর্ধেক করল কেন্দ্র, সরব তৃণমূল