Cyrus Mistry's car accident: সাইরাস মিস্ত্রির গাড়ি দুর্ঘটনায় চিকিত্‍সক-চালকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের পুলিশের

চলতি বছরের ৪ সেপ্টেম্বর বেলা পৌনে তিনটে নাগাদ মুম্বই থেকে ১৩৫ কিলোমিটার দূরে পালঘরের চারোটি এলাকায় নদীর সেতুর উপরে থাকা ডিভাইডারে ধাক্কা মারে সাইরাসদের গাড়ি।

Cyrus Mistry's car accident: সাইরাস মিস্ত্রির গাড়ি দুর্ঘটনায় চিকিত্‍সক-চালকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের পুলিশের

মুম্বই: দুর্ঘটনার মুখোমুখি হওয়ার আগে বেপরোয়া গতিতে ছুটছিল সাইরাস মিস্ত্রির (Cyrus Mistry) গাড়ি। কেন গতি এত বেশি ছিল, তা তদন্ত সাপেক্ষ। কিন্তু ওই গতিই টাটা সন্সের প্রাক্তন চেয়ারম্যান সাইরাস মিস্ত্রির মৃত্যুর কারণ হয়ে দাঁড়ায়। দুর্ঘটনার সময় গাড়ি চালকের আসনে ছিলেন ডাক্তার অনাহিতা পাণ্ডোলে। মুম্বইয়ের নামী স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ। প্রায় দু'মাস আগের ওই দুর্ঘটনায় অনাহিতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করল পুলিশ। বেপরোয়া ভাবে গাড়ি চালানোর জন্যই এই এফআইআর।

চলতি বছরের ৪ সেপ্টেম্বর বেলা পৌনে তিনটে নাগাদ মুম্বই থেকে ১৩৫ কিলোমিটার দূরে পালঘরের চারোটি এলাকায় নদীর সেতুর উপরে থাকা ডিভাইডারে ধাক্কা মারে সাইরাসদের গাড়ি। গুজরাতের আহমেদাবাদ থেকে মুম্বই ফিরছিলেন। সাইরাসের মৃত্যুর পরেই পুলিশের হাতে এসেছিল চাঞ্চল্যকর তথ্য। দুর্ঘটনার সময় প্রায় ১৩৫ কিলোমিটার বেগে চলেছিল মার্সিডিজ গাড়িটি। মাত্র ৯ মিনিটে ২০ কিলোমিটার রাস্তা পেরনোর পর দুর্ঘটনার কবলে পড়ে গাড়িটি। সাইরাস ছাড়াও গাড়িতে ছিলেন তাঁর বন্ধু দারিয়াস পাণ্ডোলে এবং দারিয়াসের স্ত্রী অনাহিতা। অনাহিতার ভাই জাহাঙ্গীরও ছিলেন।

প্রাথমিক তদন্তের পরই পুলিশ দাবি করেছিল, অতিরিক্ত গতির জেরেই দুর্ঘটনা। সাইরাস এবং জাহাঙ্গীর পাণ্ডোলে গাড়ির পিছনের আসনে বসেছিলেন। দু'জনের কেউই সিট বেল্ট বাঁধেননি।  দু'জন মারা গেলেও প্রাণে বেঁচে যান দারিয়াস ও অনাহিতা। কিন্তু তাঁরা দু'জনেই মারাত্মক জখম হন। শনিবার পুলিশের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তদন্ত রিপোর্টে পরিষ্কার দুর্ঘটনাটি ঘটেছে দায়িত্বজ্ঞানহীন ভাবে গাড়ি চালানোর জন্যই।