Global Recession: বছর শেষেই মন্দা আস্তে চলেছে, ২০২৩-এ ভয়ংকর পরিস্থিতির জন্য তৈরি থাকুন, সতর্ক করলেন নোরিয়েল রুবিনি

২০০৮ সালে বিশ্বজনীন মন্দা (Global Recession) আছড়ে পড়ার অনেক আগেই তার পূর্বভাস দিয়েছিলেন নোরিয়েল রুবিনি (Nouriel Roubini)। তাঁর আর্থিক গণনা মিলে গিয়েছিল। ফলে, রুবিনি যখন সতর্ক করছেন, তা হেলায় উড়িয়ে দেওয়ার মতো নয়।

Global Recession: বছর শেষেই  মন্দা আস্তে চলেছে, ২০২৩-এ ভয়ংকর পরিস্থিতির জন্য তৈরি থাকুন, সতর্ক করলেন নোরিয়েল রুবিনি
মার্কিন অর্থনীতিবিদ নোরিয়েল রুবিনি। ছবি: সংগৃহীত

কলকাতা: সামনের দিনগুলি আর্থিক (Global Recession) দিক থেকে সুখকর হবে না। বিশ্বজুড়ে মন্দার জেরে সংকটজনক পরিস্থিতি তৈরি হবে। ভরাডুবি একাধিক সংস্থার। ২০২৩ জুড়ে এই মন্দা চলবে। না কোনও জ্যোতিষীর ভবিষ্যদ্বাণী নয়। তবে, যিনি আগাম সতর্ক করছেন, কেউ কেউ তাঁকে গণত্‍কার বলেন। আবার কারও কাছে তিনি 'ডক্টর ডুম' ( Dr Doom) নামেও পরিচিত। যাঁরা খোঁজখবর রাখেন, তাঁদের কাছে ডক্টর ডুমের নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার নেই। হ্যাঁ, মার্কিন অর্থনীতিবিদ নোরিয়েল রুবিনির (Nouriel Roubini) কথাই বলা হচ্ছে। প্রবাদপ্রতিম অর্থনীতিবিদ ২০২৩ সালের যে অর্থনৈতিক (Global Recession) পূর্বাভাস দিয়েছেন, তা কিন্তু ভয়ংকর! সবকিছু ওলটপালট করে দেওয়ার মতো।

২০০৮ সালে বিশ্বজনীন মন্দা আছড়ে পড়ার অনেক আগেই তার পূর্বভাস দিয়েছিলেন নোরিয়েল রুবিনি। তাঁর আর্থিক গণনা মিলে গিয়েছিল। ফলে, রুবিনি যখন সতর্ক করছেন, তা হেলায় উড়িয়ে দেওয়ার মতো নয়।  ২০০৮ সালের মন্দায় ভারতেই কাজ হারিয়েছিল কয়েক লক্ষ মানুষ। বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে লক্ষ লক্ষ কর্মীর বেতন ছেঁটে দেওয়া হয়েছিল। সেসময় বহু আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যায়।

ঠিক কী বলছেন অর্থনীতির এই 'গণত্‍‌কার'? তাঁর পূর্বাভাস, এ বছরের শেষ দিক থেকেই বিশ্বজুড়ে মন্দা শুরু হয়ে যাবে। চলবে গোটা ২০২৩ সাল পর্যন্ত। দীর্ঘকালীন এই মন্দার হাত থেকে নিষ্কৃতি পাবে না আমেরিকার মতো দেশও। রুবিনির আশঙ্কা, আর্থিক মন্দার জেরে  ওই সংস্থার ভরাডুবি হবে।  বড় বড় কর্পোরেট সংস্থা, ব্যাঙ্ক, প্রাইভেট ইক্যুইটি, ক্রেডিট ফান্ড ইত্যাদির ভরাডুবি হতে চলেছে। শুধু তাই নয়, মন্দা গ্রাস করবে বহু দেশকে!

ALSO READ| Whatsapp কলিং আর ফ্রি নয়, কেন্দ্রের নতুন টেলিকম বিলে একাধিক সিদ্ধান্ত

রুবিনির ভবিষ্যদ্বাণী, ১৯৭০ সালের মতো 'স্ট্যাগফ্লেশন' পরিস্থিতি আসতে চলেছে। স্ট্যাগফ্লেশন হল এমন একটা পরিস্থিতি, যখন দেশের আর্থিক বৃদ্ধি ঝিমিয়ে থাকে। রুবিনির মতে, এই কুত্‍সিত মন্দার বাজারের ঋণ জর্জর হয়ে ভেঙে পড়তে পারে প্রচুর আর্থিক প্রতিষ্ঠান। তাঁর কথায়, 'আমরা সবাই দেখতে পাব কে কে নগ্ন হয়ে সাঁতার কাটছে!'

ALSO READ| Manik Bhattacharya News: হাইকোর্টের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে মানিক ভট্টাচার্য