'আমিই এই গুজরাত বানিয়েছি', গুজরাতি আবেগ উসকে সদর্প ঘোষণা মোদীর

মোদী দাবি করলেন, বিজেপি এ বার রেকর্ড ব্যবধানে জিতবে। তিনি নির্বাচনী প্রচারে এসেছেন বিজেপির জয়ের ব্যবধান বাড়াতে। এ

'আমিই এই গুজরাত বানিয়েছি', গুজরাতি আবেগ উসকে সদর্প ঘোষণা মোদীর

গান্ধীনগর: বিধানসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণার পর প্রথম বার গুজরাতে গিয়ে রাজ্যবাসীর জন্য নতুন স্লোগান বেঁধে দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। রবিবার গুজরাতের কাপরাদা গ্রামে জনসভা ছিল মোদীর। সেখানে রাজ্যবাসীর জন্য স্লোগান বেঁধে দিলেন মোদী। গুজরাতি আবেগ ছুঁতে বললেন, 'আ গুজরাত, ম্যায় বন্যাউ ছে' ( আমি এই গুজরাত বানিয়েছি)। তিনি নিজে বললেন। দলের কর্মী-সমর্থক-সাধারণ মানুষকে দিয়েও বেশ কয়েক বার বলালেন নরেন্দ্র মোদী। গুজরাতের কাপরাদায় এদিন প্রায় ২৫ মিনিট ভাষণ দেন মোদী।

দাবি করলেন, বিজেপি এ বার রেকর্ড ব্যবধানে জিতবে। তিনি নির্বাচনী প্রচারে এসেছেন বিজেপির জয়ের ব্যবধান বাড়াতে। এ-ও বলে গেলেন, গুজরাতের জন্য তিনি যতটা সম্ভব সময় দিতে প্রস্তুত। শুধু মোদীর দাবি নয়, একাধিক জনমত সমীক্ষার ইঙ্গিত, বিজেপি আগের বারের থেকে প্রায় ৪০টি আসন বেশি পেতে চলেছে। যদিও গুজরাতে এবার ত্রিমুখী লড়াই। অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আমআদমি অন্যতম শক্তি হয়ে উঠতে পারে।

২০১৭-র নির্বাচনে ১৮২টির মধ্যে বিজেপি জিতেছিল ৯৯টি আসনে। এ বার ১৩৫ থেকে ১৪৩টি আসন পেতে পারে। কংগ্রেস গতবার পেয়েছিল ৭৭টি আসন। কংগ্রেসের আসন এ বার কমে ৩৬ থেকে ৪৪ এর মধ্যে থাকতে পারে । এর আগে পরপর ছ'টি বিধানসভা নির্বাচনে টানা জয় পেয়েছে বিজেপি।

কংগ্রেসের নাম না করে মোদী বলেন,  'গত ২০ বছর ধরে রাজ্যের মানহানি করা হয়েছে। গুজরাতবাসী এবারের নির্বাচনে রাজ্য বিভাজনকারী শক্তিগুলিকে ধ্বংস করে দেবে।' মোদীর কথায়, 'গুজরাতের যে বিভাজনকারী শক্তিগুলি ঘৃণা ছড়াতে লিপ্ত হয়েছে, যারা গুজরাতকে অপমান করে কিংবা করার চেষ্টা করে, তাদের গুজরাত থেকে তাড়ানো হয়েছে। এ বারের নির্বাচনেও তাদের একই পরিণতি হবে।'

গত সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী গুজরাত সফরের সময়ই মরবীর মচ্ছু নদীতে ব্রিজ ভেঙে প্রায় ১৪০ জনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। গুজরাতে ১ ও ৫ ডিসেম্বর দু'দফায় নির্বাচন। প্রথম দফায় ৮৯টি আসনে এবং দ্বিতীয় দফায় ৯৩টি আসনে নির্বাচন। ৮ ডিসেম্বর ভোট গণনা ।