Meyeder Bratakatha: ‘মেয়েদের ব্রতকথা’য় এ বার 'মা ষষ্ঠী'র আখ্যান

জমিদার গিন্নি মায়ার রূপ, ঐশ্বর্য সবই ছিল, ছিল না শুধু সন্তান। মায়া ছিলেন মৃতবৎসা। মায়া কি শেষ পর্যন্ত ষষ্ঠীর কৃপা পাবেন? 'মেয়েদের ব্রতকথা' (Meyeder Bratakatha)-য় সোমবার ৮ নভেম্বর থেকে দেখুন 'মা ষষ্ঠীর ব্রত'।

Meyeder Bratakatha: ‘মেয়েদের ব্রতকথা’য় এ বার  'মা ষষ্ঠী'র আখ্যান

।। সঙ্কর্ষণ বন্দ্যোপাধ্যায় 

বাংলার ধর্মীয় 'ব্রতকথা' (Meyeder Bratakatha) বা 'ব্রতপালন' শুধুমাত্র মেয়েদের আচার-অনুষ্ঠান নয়। এই ব্রতকথাগুলোর মধ্য দিয়ে প্রকট হয়ে ওঠে বাংলার গ্রামজীবন, সমাজজীবন, সংস্কৃতি, সর্বোপরি বাংলার ইতিহাস। লোকসংস্কৃতিকে উপেক্ষা করে কোনও একটি নির্দিষ্ট ভৌগোলিক অঞ্চলের সার্বিক ধারণা পাওয়া যায় না। এই দৃষ্টিভঙ্গি থেকেই আকাশ আটে নতুন ধারাবাহিক ‘মেয়েদের ব্রতকথা’। এক সময় বাড়ির বড়দের মুখে মুখেই ঘুরত বিভিন্ন ব্রতকথার (Meyeder Bratakatha) আখ্যান। বাংলার সেই হারিয়ে যাওয়া সংস্কৃতি ধারাবাহিকের আকারে চলছে আকাশ আটে।

'মঙ্গলচণ্ডীর' পর এ বারের ব্রতকথায় 'মা ষষ্ঠী'। বাংলার ঘরে ঘরে সন্তানের মঙ্গলকামনায় মায়েরা দেবী ষষ্ঠীর ব্রত পালন করেন। এই অধ্যায়ে দেবী ষষ্ঠীর কৃপা মাহাত্ম্যই শুধু নয়, দেবী ষষ্ঠীর আবির্ভাব এবং মর্ত্যে তার পূজার প্রচলন কী ভাবে হল, সেই কাহিনিই উঠে আসবে ব্রতকথার আগামী গল্পে।

দেবী ষষ্ঠীর অপার মহিমায় অনেকের মতো ধন্য হয়েছিলেন ভৈরবপুরের জমিদার ইন্দ্রনাথ নাগচৌধুরীর স্ত্রী মায়া। মায়ার রূপ, ঐশ্বর্য সবই ছিল, ছিল না শুধু সন্তান। মায়া ছিলেন মৃতবৎসা। তাঁর সন্তান জন্ম মুহূর্তেই মারা যেত। মায়ার সদ্যোজাত সন্তানের মৃত্যুতে আনন্দের সাড়া পড়ে যেত শচীকান্ত নাগচৌধুরীর পরিবারে।

ALSO READ| Kabhi Kabhie Ittefaq Sey | 'খড়কুটো' এ বার হিন্দিতে

শচীকান্ত ছিলেন মায়ার স্বামী ইন্দ্রনাথের জ্যাঠামশাই। পিশাচসিদ্ধ শচীকান্ত চেয়েছিলেন তাঁর নাতি রঘু জমিদার হোক। ইন্দ্রনাথের ছেলে হলে তাঁর নাতির তো জমিদার হওয়া হবে না। তাই তিনি নানারকম তুকতাক করে সর্বনাশ করতে চাইতেন মায়া ও ইন্দ্রনাথের।

এদিকে সন্তান কামনায় মায়ার আকুলতা দেখে জমিদার বাড়ির খাস দাসী চঞ্চলা মায়াকে বলেন, দেবী ষষ্ঠীর পুজো করলে ষষ্ঠীর কৃপায় মায়া স্বাস্থ্যবান সন্তান লাভ করবে। মায়া তৎক্ষণাৎ রাজি হয়ে যান। কিন্তু বাধ সাধেন শচীকান্ত। তাঁর যুক্তি, নাগচৌধুরী পরিবারের ইষ্টদেবতা কালভৈরব।কালভৈরব যেখানে অধিষ্ঠান করছেন, সেখানে অন্য কোন দেবদেবীর পুজো নিষিদ্ধ। শচীকান্তকে ইন্দ্রও সমর্থন করেন।

ALSO READ| ডান্স বাংলা ডান্স-এর প্রতিযোগী থেকে মেগা ধারাবাহিকের নায়িকা মেঘা

কিন্তু মায়া মনে মনে পণ করেন ষষ্ঠী পুজো তিনি করবেনই। মায়ার মনোবাসনা কি পূর্ণ হবে? ইন্দ্ৰ কি তাঁর সঙ্গে সহমত হবেন? মায়া কি ষষ্ঠীর কৃপা পাবেন? এই সব প্রশ্নের উত্তর নিয়ে এগিয়ে চলবে ষষ্ঠীর ব্রতকথা।

ধারাবাহিকে অভিনয়ে গৌতম মুখোপাধ্যায়, চৈতালী দত্ত বর্মন, নমিতা চক্রবর্তী, দ্রণ, প্রীতম, শ্রেষ্ঠা, ঐশ্বর্য প্রমুখ। কাহিনি লাভলী মুখোপাধ্যায়ের। সংলাপ ও চিত্রনাট্য তন্ময় কাকলী গোস্বামীর। পরিচালনায় সুমন রায়।

'মা ষষ্ঠী' আগামী সোমবার থেকে আকাশ আটে সন্ধ্যা ৬.৩০-এ। 

ছবি: প্রকাশ পাইন

WATCH | শুনুন সেরা শ্যামাসংগীত ২০২১