Saurav Ganguly Dussehra: দশেরায় ৫০ ফুট দীর্ঘ রাবণের বিনাশ এ বার 'দাদা'র হাতে

এ বার সল্টলেকের (Kolkata Dussehra) দশেরা উত্‍‌সব আরও ঝলমলে হয়ে উঠবে বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে। সল্টলেকের সেন্ট্রাল পার্কে ৫০ ফুট লম্বা রাবণের কুশপুতুলের বিনাশ হবে 'দাদা'র (Saurav Ganguly Dussehra) হাতে। তিনিই এ বার এই উত্‍‌সবের প্রধান অতিথি (Saurav Ganguly to burn 50-feet-tall Ravana effigy)।

Saurav Ganguly Dussehra: দশেরায় ৫০ ফুট দীর্ঘ রাবণের বিনাশ এ বার 'দাদা'র হাতে

কলকাতা: চারদিকে দুগ্গার আগমনির মধ্যেই শহরে দশেরার প্রস্তুতি (Kolkata Dussehra) চলছে জোরকদমে। পুজোর চার দিন-- মহাষষ্ঠী থেকে মহানবমীর হল্লোড় কেটে কখন যে বিসর্জনের বাদ্যি বাজতে শুরু করবে...   তাই দশেরার যাবতীয় আয়োজন প্রায় সম্পন্ন করে ফেলেছেন সল্টলেক সাংস্কৃতিক সংসদের সদস্যরা। আনন্দনগরী কলকাতার দশেরা উত্‍‌‍সবে বিগত কয়েক বছর ধরে অন্যমাত্রা সংযোজন করেছে সল্টলেকের এই সংগঠনটি। নিছক রাবণের কুশপুত্তলিকা পোড়ানো নয়, দশেরার ঐতিহ্য-সংস্কৃতিকে আক্ষরিক অর্থেই উত্‍‌সবের চেহারা দিয়েছে সল্টলেক সাংস্কৃতিক সংসদ কমিটি। আয়োজনে তাদের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে সানমার্গ। সল্টলেকের এই দশেরা উত্‍‌সব ইতিমধ্যে পূর্ব ভারতের বৃহত্তর অনুষ্ঠানের স্বীকৃতি পেয়েছে (Saurav Ganguly to burn 50-feet-tall Ravana effigy)।

এ বার সল্টলেকের এই দশেরা উত্‍‌সব আরও ঝলমলে হয়ে উঠবে বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে। সল্টলেকের সেন্ট্রাল পার্কে ৫০ ফুট লম্বা রাবণের কুশপুতুলের বিনাশ হবে 'দাদা'র (Saurav Ganguly Dussehra) হাতে। তিনিই এ বার এই উত্‍‌সবের প্রধান অতিথি। শুধু রাবণ নয়, মেঘনাদ বধ হবে। হবে কুম্ভকর্ণের ধ্বংসযজ্ঞও। ৪০ ফুটের কুম্ভকর্ণ ও মেঘনাদের কুশপুতুলও এ জন্য তৈরি রয়েছে।

দশেরা দেবীপক্ষের দশম দিন বা নবরাত্রির দশম দিন। এই দিন লঙ্কায় দশানন রাবণকে হারিয়ে রাম যুদ্ধ জয় করে সীতাকে উদ্ধার করেছিলেন। স্থানীয় ভাষায় দশহরা শব্দের অর্থও তা-ই। দশ মানে দশানন রাবণ, আর হরা মানে হার। দশেরা তাই অশুভের পরাজয়ের মধ্য দিয়ে শুভর জয়। রেওয়াজ মেনে দশেরার সকালে হিন্দুদের অনেকেই মন্দিরে দেবতাদের উদ্দেশে বিশেষ নৈবেদ্য দিয়ে পুজো দেন। মন্দিরে যেতে না পারলে, বাড়িতেই পুজোপাঠ করেন কেউ কেউ। আর সন্ধ্যায় চলে দানব রাজা রাবণের নিধন। দেবী দুর্গা ভাসান যাওয়ার সময় সোল্লাসে পোড়ানো হয় রাবণকে। এ বার আর অতিমারির চোখরাঙানি নেই। জনসমাগমে নিষেধাজ্ঞার বেড়িও নেই। তাই উদ্যোক্তাদের আশা, দশমীর সন্ধ্যায় দশেরার বার্ষিক আচার-অনুষ্ঠানের সাক্ষী হতে সল্টলেকের সেন্ট্রাল পার্কে এ বার কয়েক হাজার মানুষের ভিড় হবে।

ALSO READ| Sheesh Mahal-Mirror Palace: রাজস্থানের রাজকীয় সৌন্দর্য এবং মহিমার বিচ্ছুরণ মহম্মদ আলি পার্কের শিশমহলে

সল্টলেক সাংস্কৃতিক সংসদের সভাপতি প্রদীপ টোডি বললেন, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে এবার প্রধান অতিথি হিসাবে পাওয়া আমাদের কাছে স্পেশাল। জানালেন, দশেরার জন্য এবার ৫০ ফুটের শক্তপোক্ত রাবণের কুশপুতুল তৈরি হয়েছে। রাবণের কুশপুতুল পোড়ানো ছাড়াও পৃথক 'ফায়ার শো' থাকবে বলেও জানালেন টোডি।

সল্টলেক সাংস্কৃতিক সংসদের আর এক কর্তা ললিত বেরিওয়ালা জানালেন, এবার তাঁদের দশেরা উত্‍‌সবের দশ বছর উদ্‌যাপন। তাই দশেরার ময়দানে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করা হয়েছে। বিভিন্ন রাজ্য থেকে শিল্পীরা আসবেন। রাবণের কুশপুতুল পোড়ানোর আগেই এই অনুষ্ঠান শুরু হবে। ললিতের দাবি, এবার কমপক্ষে ২৫ হাজার মানুষের জমায়েত হবে বলে আশা রাখছি।   

ALSO READ|  গঙ্গার পূর্ণতা দিয়েই এ বার দুর্গার পূর্ণতা ধরতে চেয়েছে নারকেলডাঙার পূর্ব কলিকাতা সর্বজনীন