Chinsurah Imambara Hospital News: ইমার্জেন্সির সামনে পিস্তল উঁচিয়ে গুলি, হুলুস্থুল চুঁচুড়া ইমামবাড়া হাসপাতালে 

এদিন হুগলির কুখ্যাত দুষ্কৃতী টোটোন বিশ্বাসকে (Hooghly Crime News) নিয়ে পুলিশকর্মীরা হাসপাতালের জরুরি বিভাগ থেকে বেরনোর পথে হামলা হয়। তাকে লক্ষ্য করে পরপর গুলি ছোড়ে দুষ্কৃতীরা।

Chinsurah Imambara Hospital News: ইমার্জেন্সির সামনে পিস্তল উঁচিয়ে গুলি, হুলুস্থুল চুঁচুড়া ইমামবাড়া হাসপাতালে 

চুঁচুড়া: শনিবারের বারবেলায় রীতিমতো হুলুস্থুল কাণ্ড বেধে গেল হুগলির চুঁচুড়া ইমামবাড়া হাসপাতালে (Chinsurah Imambara Hospital news)। জরুরি বিভাগের সামনে পিস্তল উঁচিয়ে দুষ্কৃতীরা দৌরাত্ম্য শুরু করলে, প্রাণভয়ে দৌড়োদৌড়ি শুরু করে দেন রোগী ও পরিবারের লোকজন। যেন কোনও হিন্দি থ্রিলারের শ্যুটিং। শেষ পর্যন্ত পুলিশের তাড়া খেয়ে পিস্তল ফেলেই চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা। টোটন বিশ্বাস নামে এক কুখ্যাত দুষ্কৃতীর পেটে গুলি লেগেছে (Hooghly Crime News)। হাসপাতাল চত্বরের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে হামলাকারীদের শনাক্ত করার চেষ্টা করছে পুলিশ। পুরনো শত্রুতার জেরেই টোটন বিশ্বাসকে এদিন খুনের চেষ্টা করেছিল তার বিরুদ্ধ গোষ্ঠীর দুষ্কৃতীরা, এমনটাই ধারণা পুলিশের (Chinsurah Imambara Hospital news)।

শনিবার বেলা সাড়ে ১২টা নাগাদ চুঁচুড়া থানা থেকে বেশ কয়েক জন দুষ্কৃতীকে ইমামবাড়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। মেডিক্যাল চেক-আপের জন্যই তাদের নিয়ে হাসপাতালে যায় পুলিশ। আসামিদের মধ্যে ছিল টোটোন বিশ্বাসও। টোটোনের নামে একাধিক খুন ও ছিনতাইয়ের অভিযোগ রয়েছে। দীর্ঘ তিন বছর জেলেই রয়েছে টোটোন।

এদিন টোটোনকে নিয়ে পুলিশকর্মীরা হাসপাতালের জরুরি বিভাগ থেকে বেরনোর পথে হামলা হয় (Hooghly Crime News)। তাকে লক্ষ্য করে পরপর গুলি ছোড়ে দুষ্কৃতীরা। চোখের সামনে গুলি চলতে দেখে দৌড়োদৌড়ি শুরু করে দেন রোগী ও তাঁদের পরিজনেরা। কর্তব্যরত পুলিশকর্মীরা ধাওয়া করলে, পিস্তল ফেলে পালায় দুষ্কৃতীরা। নিজেকে বাঁচাতে দৌড়ে গিয়ে হাসপাতালের বাইরে থাকা প্রিজন ভ্যানে উঠে পড়ে টোটোন। তার পেটে গুলি লেগেছে। পরে পুলিশ তাকে প্রিজন ভ্যান থেকে নামিয়ে চিকিত্‍সার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যায়।

ALSO READ| Arpita Mukherjee News: অর্পিতার প্রাণ সংশয়ের আশঙ্কা, জেল সুপারকে বিশেষ নির্দেশ আদালতের

চুঁচুড়া থানা থেকে ঢিল-ছোড়া দূরত্ব ইমামবাড়া হাসপাতালের। শুটআউটের খবর পেয়ে বিশাল পুলিশ বাহিনী হাসপাতালে যায়। হাজির হন জেলা পুলিশের শীর্ষ কর্তারাও। হামলাকারীদের চিহ্নিত করতে হাসপাতালের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এদিন এই ঘটনার পর কড়া নিরাপত্তায় বাকি আসামিদেরও একে-একে মেডিক্যাল পরীক্ষা করানো হয়।

ALSO READ| Partha-Arpita: পার্থ-অর্পিতার ১৪ দিন জেল হেফাজত, ঠিকানা এবার প্রেসিডেন্সি