Sudan Death By Stoning: ব্যাভিচারের দায়ে তরুণীকে পাথর ছুড়ে হত্যার নির্দেশ সুদানে

আফ্রিকান সেন্টার ফর জাস্টিস অ্যান্ড পিস দাবি তোলে, অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে সুদানের ওই তরুণীকে (Sudan Death By Stoning)। বিচারের নামে অভিযুক্তের সঙ্গে প্রহসন হয়েছে বলেও দাবি করে আফ্রিকার এই সংগঠনটি।

Sudan Death By Stoning: ব্যাভিচারের দায়ে তরুণীকে পাথর ছুড়ে হত্যার নির্দেশ সুদানে
ছবিটি প্রতীকী

ডিজিটাল ডেস্ক: তরুণীর বিরুদ্ধে ব্যাভিচারের অভিযোগ ওঠায় পাথর ছুড়ে হত্যার নির্দেশ দিল সুদানের এক আদালত (Sudan Death By Stoning)। বিচারেরর নামে এই মধ্যযুগীয় রায়ে প্রতিবাদে সরব হয়েছে একাধিক মানবাধিকার সংগঠন। দ্রুত ওই তরুণীর নিঃশর্ত মুক্তির দাবি উঠেছে। রায়ের নামে নিম্ন আদালতের এই বর্বরতাকে চ্যালেঞ্জ করে ইতিমধ্যে সে দেশের সুপ্রিম কোর্টে মামলা হয়েছে। মানবাধিকার সংগঠনগুলি এখন সুপ্রিম সিদ্ধান্তের (Sudan Death By Stoning) অপেক্ষায়।

আফ্রিকার বৃহত্তম দেশ সুদান মুসলিম অধ্যুষিত। পাথর ছুড়ে হত্যার শাস্তি সুদানে নতুন কিছু নয়। তবে আন্তর্জাতিক চাপে মধ্যযুগীয় এই শাস্তি বন্ধ রেখেছিল দেশটি। ২০১৩ সালে শেষবার এক মহিলাকে পাথর ছুড়ে হত্যা করা হয় সুদানে। তার পর, এ ধরনের মধ্যযুগীয় নিদান আর শোনা যায়নি।  ২০২০ সালে এই আইন সংশোধনের কথা উঠলেও শেষ পর্যন্ত তা রূপায়িত হয়নি। এ বার ব্যাভিচারের অভিযোগ মারিয়াম আলসায়েদ নামে বছর ২০-র তরুণীকে পাথর ছুড়ে হত্যার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

এই শাস্তির কথা (Sudan Death By Stoning) প্রকাশ্যে আসতেই মেয়েদের অধিকার নিয়ে কাজ করা একাধিক সংগঠন প্রতিবাদে সোচ্চার হয়। আফ্রিকান সেন্টার ফর জাস্টিস অ্যান্ড পিস দাবি তোলে, অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে মারিয়ামকে। বিচারের নামে অভিযুক্তের সঙ্গে প্রহসন হয়েছে বলেও দাবি করে আফ্রিকার এই সংগঠনটি।

ALSO READ| Sri Lanka Crisis: শ্রীলঙ্কা ছেড়ে সস্ত্রীক মালদ্বীপে আশ্রয় গোতাবায়া রাজাপক্ষের

আফ্রিকান সেন্টার ফর জাস্টিস অ্যান্ড পিস-এর বক্তব্য, পাথর ছুড়ে হত্যার নিদান আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইন লঙ্ঘন। এই শাস্তি অমানবিক, চূড়ান্ত বর্বরতা ছাড়া কিছু নয়। বছর কুড়ির ওই তরুণীকে কোনওরকম আইনি সুবিধাও দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ।

গত বছরই সুদানে সামরিক অভ্যুত্থান হয়। এর পর অনেকেই আশঙ্কা করেছিলেন, সামরিক শাসনে সুদান ফের সামাজিক ভাবে রক্ষণশীল হয়ে উঠতে পারে। সুদানের আদালতের এই রায়ে সেই আশঙ্কাই সত্যি হল। 

ALSO READ|  Gotabaya Rajapaksa: গোতাবায়া রাজাপক্ষের বার্তা, ইস্তফা তিনি দেবেন, তবে শর্ত আছে...