Dooars Shooting: ডুয়ার্সের সংরক্ষিত বনাঞ্চলে বিনা অনুমতিতে শ্যুটিং, ড্রোন কাড়ল বন দফতর

সূত্রের খবর, খুট্টিমারি বিট-এর অন্তর্গত সংরক্ষিত বনাঞ্চলে কলকাতার এক প্রযোজক সংস্থার ছবির শ্যুটিং করছিল। বনদফতর খবর পেয়ে শ্যুটিং বন্ধ করে দেয়। অনুমতি ছাড়া সেখানে শ্যুটিং চলছিল।

Dooars Shooting: ডুয়ার্সের সংরক্ষিত বনাঞ্চলে বিনা অনুমতিতে শ্যুটিং, ড্রোন কাড়ল বন দফতর
ছবিটি প্রতীকী

আলিপুরদুয়ার: জঙ্গলের সংরক্ষিত অঞ্চলে বন দফতরের অনুমতি ছাড়া ড্রোন ওড়ানো যায় না। কিন্তু সেই অনুমতির তোয়াক্কা না-করেই ড্রোন উড়িয়ে রবিবার সিনেমার শ্যুটিং চলছিল ( Dooars Shooting)। বনদফতর কিচ্ছুটি জানতে পারেনি। তবে, জঙ্গলের সংরক্ষিত অঞ্চলে ড্রোন উড়তে দেখে আপত্তি করেন বনবস্তির বাসিন্দারা। ড্রোন নামিয়ে নিতে বাধ্য হয় প্রযোজক সংস্থা। পরে, বন দফতরের কর্মীরা এসে ড্রোনটি বাজেয়াপ্ত করে (Dooars Shooting)। ডুয়ার্সের মোরাঘাট রেঞ্জের অন্তর্গত খুট্টিমারি বিট এলাকার ঘটনা। রাহুল মুখোপাধ্যায় পরিচালিত একটি ছবির শ্যুটিং চলছিল। 

বর্ষার মরশুম বন্য জীবজন্তুদের প্রজননের সময়। যে কারণে ১৬ জুন থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জঙ্গলে ঢোকার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা বলবত্‍‌ থাকে। বছরের নির্দিষ্ট এই সময়টায় পর্যটকদের জন্য জঙ্গলের দরজা বন্ধ থাকে। কোর এলাকায় ঢোকা তো দূর অস্ত, বাইরের বাফার এলাকাতেও প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়। জঙ্গল কেন্দ্রিক সমস্ত রকম ইকো ট্যুরিজম, জঙ্গল সাফারি, হাতি সাফারি বন্ধ করে দেওয়া হয়। এমন একটা সময়ে জঙ্গলে ড্রোন উড়িয়ে শ্যুটিং করায় বনবস্তির বাসিন্দারা ক্ষুব্ধ হন। 

ALSO READ| Pankaj Tripathi Interview: রোমান্টিক চরিত্রে অভিনয়ের অপেক্ষায় পঙ্কজ ত্রিপাঠী

সূত্রের খবর, খুট্টিমারি বিট-এর অন্তর্গত সংরক্ষিত বনাঞ্চলে কলকাতার এক প্রযোজক সংস্থার ছবির শ্যুটিং করছিল। জঙ্গলের মধ্য দিয়ে বাইক চালিয়ে যাওয়ার একটি দৃশ্যের শ্যুট করা হচ্ছিল ড্রোন থেকে। মোরাঘাট রেঞ্জের বনকর্মীরা এসে ড্রোনটি বাজেয়াপ্ত করে। প্রযোজক সংস্থাকে সিজার লিস্ট দেওয়া হয়েছে। আইন অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ করবে বনদফতর। 

ALSO READ|  Subho Bijoya: দুর্গাপুজোর আবহে যৌথ পরিবারের গল্প শোনাবে 'শুভ বিজয়া'